সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেবিদ্বারে কেঁদে কেঁদে ঈগল প্রতিকে ভোট চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম নৌকায় ভোট দিয়েই মেঘনার সঠিক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব… সেলিমা আহমাদ ঈগলে ভোট দিলে গোমতীর মাটি লুট জিবির নামে চাঁদাবাজি বন্ধ হবে: আবুল কালাম আজাদ দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা কুমিল্লায় পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ ব্রাজিলে ঘূর্ণিঝড়ে নিহত ২২ সিলেটে মসজিদের পুকুর থেকে ইমামের মরদেহ উদ্ধার সিলেটে সিএনজি স্টেশনের জেনারেটর বিস্ফোরণে দগ্ধ ৭ বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলের নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা মারা গেলেন লন্ডনের বাংলাদেশ হাইক‌মিশনের মিনিস্টার মুক্তি

ঝালকাঠিতে সম্পত্তির নকল কাগজ বানিয়ে বিক্রির অভিযোগ সংবাদ সম্মেলন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৯ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৪

 

 

আবু সায়েম আকন,

ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ

 

ঝালকাঠির রাজাপুরে সম্পত্তির নকল কাগজপত্র বানিয়ে বিক্রি করার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগীরা। মৃত আতাহার আলী খানের ছেলে মো. ইউনুস খানের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ পাওয়া যায়। মঙ্গলবার সকাল সারে ৯ টায় রাজাপুর প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে লিখিত বক্তব্যে এসব অভিযোগ করেন মো. শহিদুল ইসলাম, মো. গোল ফুক্কর খান, মো. জসিম খান, মোসা. আয়সা বেগম, মো. রিজিয়া বেগম, মো. আবুল কালাম খান।

 

ভুক্তভোগীদের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, রাজাপুরের ৪৭ নং মৌজার বিভিন্ন দাগে ৬৭ শতাংশ জমির কিছু ওয়ারিশ সূত্রে এবং কিছু ক্রয় সূত্রে মালিক তারা। মোট সম্পত্তির সারে ২৭ শতাংশের মালিক ছিল মৃত আজাহার আলী খানের স্ত্রী মৃত রোকেয়া খাতুন। যা তিনি ৪০ বছর আগে বিক্রি করে দেয়। বর্তমানে রোকেয়া খাতুনের ছেলে ইউনুস খান (ইউনুস মেকার) নকল কাগজপত্র তৈরি করে ২৩৯০, ২৩৯১ নাম্বারের ২ খানা দলিলে ১৮.৮৩ শতাংশ সম্পত্তি রাজাপুর সদর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও জালিয়াবাড়ি নিবাসী মৃত আলতাফ হোসেন খানের ছেলে আল আমিন খানের কাছে বিক্রি করে। আল আমিন খান ভুয়া দলিলের বলে গত ১৯ অক্টোবর রাতের আধারে লোকজন নিয়ে সম্পত্তিতে থাকা ঘর সহ দখলে নেয়। এসময় বাধা দিতে গেলে প্রান নাশের হুমকি দেয়। পরে ৩০ অক্টোবর আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালত শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে জমিতে কাউকে প্রবেশ না করার নোটিশ জারি করলেও আল আমিন ক্ষমতা প্রয়োগ করে জোরপূর্বক দখলকৃত জমিতে বসবাস করছে।

 

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা নকল কাগজপত্রের বলে যাতে সম্মতি তাদের করে নিতে না পারে সে জন্য আদালত, বরিশাল জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস এবং রাজাপুর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার অফিস সহ সংশ্লিষ্ট সকলের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

 

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মো. আল আমিন জানান, ইউনুস মোকারের জমি, এবং সে দখলে আছে আমার সাথে ইউনুস মেকারের বায়নাচুক্তি হইছে। সে পাইলে আমি পাব, না পাইলে আমি পাব না।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved ©2023 -ওল্ডহাম বাংলা নিউজ |

সম্পাদক ও প্রকাশক: