সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৭:০০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দেবিদ্বারে কেঁদে কেঁদে ঈগল প্রতিকে ভোট চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম নৌকায় ভোট দিয়েই মেঘনার সঠিক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব… সেলিমা আহমাদ ঈগলে ভোট দিলে গোমতীর মাটি লুট জিবির নামে চাঁদাবাজি বন্ধ হবে: আবুল কালাম আজাদ দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা কুমিল্লায় পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ ব্রাজিলে ঘূর্ণিঝড়ে নিহত ২২ সিলেটে মসজিদের পুকুর থেকে ইমামের মরদেহ উদ্ধার সিলেটে সিএনজি স্টেশনের জেনারেটর বিস্ফোরণে দগ্ধ ৭ বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলের নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা মারা গেলেন লন্ডনের বাংলাদেশ হাইক‌মিশনের মিনিস্টার মুক্তি

তিন দশক পরে একসঙ্গে নকীব–বিশ্বজিৎ

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৫৭
বিজ্ঞাপন

আপনাদের সম্পর্ক ভালো। দীর্ঘদিনের পরিচয়। নকীব খানের সুরে আগেও গান করেছেন। তাহলে এত দীর্ঘ বিরতি কেন? কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, ‘কেন যেন করা হয়নি। সবাই কাজ নিয়ে ব্যস্ত। এমন নয় যে মান–অভিমান ছিল। আমাদের সম্পর্ক ঠিকই ছিল। গানগুলো আমরা নিজেরা করি, অনেক সময় প্রডাকশনের মাধ্যমে আসে, এখন তো প্রডাকশনের বিষয়গুলো নেই। তবে নকীব ভাইকে আমি নিজে থেকেই অনেকবার বলছি। ভাইও রাজি হয়েছেন। কিন্তু করব করব করে আর করা হয়নি। সম্প্রতি ভাইয়ের সঙ্গে কথা হলে বললেন, এত দিন ধরে বলছ, তোমার জন্য একটি গান রেডি করেছি। শুনেই ভালো লাগল। বুধবার গানটিতে ভয়েস দিয়েছি।’

নকীব খানের গানে যেমন আলাদা একটা বিশেষত্ব থাকে, তেমনি এই গানেও থাকবে বলে জানালেন কুমার বিশ্বজিৎ, ‘নকীব ভাই সংগীতে অনেক ম্যাচিউর একজন মানুষ। সুরের কাঠামো, সুরের গাঁথুনিটা অনেক ম্যাচিউর। এই গানের মধ্যে যেমন মেলোডি আছে, সেই রকম বাঁধনটাও আছে। সম্পূর্ণ গানটা শুনলে মনে থাকবে। গানে নকীব ভাইয়ের সিগনেচার আছে। বোঝা যাবে এটা নকীব ভাইয়ের।’
গানটির এখনো কোনো শিরোনাম ঠিক হয়নি। বিশেষ একটি সময়ে গানটি মুক্তি দিতে চান বিশ্বজিৎ। তখনই ঠিক করতে চান শিরোনাম। গানের সংগীত আয়োজন করেছেন কিশোর দাস। লিখেছেন শহীদ মাহমুদ জঙ্গী।

‘আমার ছোট্ট পরী’ শিরোনামে ছোটদের একটি গানও সম্প্রতি করেছেন কুমার বিশ্বজিৎ। গানের কথা লিখেছেন রাফিউজ্জামান রাফি। গানটির সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন সুমন কল্যাণ। গানটি প্রসঙ্গে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, ‘এখন দেশে ব্রোকেন ফ্যামিলি বেড়ে যাচ্ছে। পিতামাতারা বিচ্ছেদের পরে নতুন সংসার করেন। কিন্তু ভুক্তভোগী হচ্ছে শিশুরা। সে কোন পক্ষে যাবে? সামাজিকভাবে আমরা এখন বিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। এখন সারা বিশ্বে এক সংস্কৃতি হয়ে গেছে। আমাদের মা–বাবা একসঙ্গে সংসার করে গেছেন। কিন্তু এখনকার জেনারেশনের অনেকেই তা করছে না। প্রতিনিয়ত এগুলো আমাদের ফেস করতে হচ্ছে। এই নিয়েই গান। থিমটি আমার খুবই ভালো লেগেছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved ©2023 -ওল্ডহাম বাংলা নিউজ |

সম্পাদক ও প্রকাশক: