মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৬:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেবিদ্বারে কেঁদে কেঁদে ঈগল প্রতিকে ভোট চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম নৌকায় ভোট দিয়েই মেঘনার সঠিক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব… সেলিমা আহমাদ ঈগলে ভোট দিলে গোমতীর মাটি লুট জিবির নামে চাঁদাবাজি বন্ধ হবে: আবুল কালাম আজাদ দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা কুমিল্লায় পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ ব্রাজিলে ঘূর্ণিঝড়ে নিহত ২২ সিলেটে মসজিদের পুকুর থেকে ইমামের মরদেহ উদ্ধার সিলেটে সিএনজি স্টেশনের জেনারেটর বিস্ফোরণে দগ্ধ ৭ বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলের নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা মারা গেলেন লন্ডনের বাংলাদেশ হাইক‌মিশনের মিনিস্টার মুক্তি

সন্তানের গলায় ছুরি ধরে জোর পূর্বক তালাক নামায় স্বাক্ষর নিয়ে স্তীকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে স্বামী

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৬ মে, ২০২২
  • ৩৯

 

 

সাংবাদিক  জাহিদ হাসান

জামালপুর  জেলা  প্রতিনিধি

 

স্ত্রীর অধিকার চাওয়ায় স্ত্রীকে মারধোর করে সন্তানের গলায় ছুরি ধরে জোর পূর্বক তালাক নামায় স্বাক্ষর নিয়ে স্ত্রীকে নির্যাতন করে তাড়িয়ে দিয়েছে স্বামী। এবিষয়ে জামালপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

জানাযায়, সোমবার দিবাগত রাতে মানবাধিকার কর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম ও থানার ডিউটি অফিসার জ্যোৎস্না জানান, রাজশাহী অঞ্চলের পুঠিয়ার এলাকার বাসিন্দা হাবিবা নামে একটি মেয়ের সাথে জামালপুর সদর উপজেলার নরুন্দি ইউনিয়নের তারাগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা আব্দুছ ছাত্তারের সাথে গত দেড় বছর আগে ইসলামী শরিয়া অনুযায়ী বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের একটি সন্তান হলে কিছুদিন পর ছাত্তার পুঠিয়া থেকে চলে আসে জামালপুরে। দীর্ঘদিন অতিবাহিতের পর হাবিবার সাথে তার স্বামী আব্দুছ সাত্তার যোগাযোগ না করায় বাধ্য হয়ে হাবিবা তার সাত মাসের শিশু সন্তানকে সাথে নিয়ে গত সোমবার (২ মে) চলে আসে জামালপুরের তারাগঞ্জ স্বামীর বাড়ি। আসার পর থেকে স্বামী আব্দুল ছাত্তার, আনোয়ার ও তারা মিয়া সহ অনেকে সারা রাত অমানুষিক নির্যাতন শুরু করে হাবিবার উপর।অবশেষে স্বামী ছাত্তার তার সন্তানের গলায় ছুরি ধরে জোরপূর্বক তালাক নামায় স্বাক্ষর নেয় স্ত্রীর হাবিবার। পরে তাকে শারীরিক নির্যাতন,মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়।

এ ঘটনা মানবাধিকার কর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম বিষয়টি জেনে হাবিবাকে সাথে নিয়ে জামালপুর সদর থানায় উপস্থিত হলে ডিউটি অফিসার এস আই জ্যোৎস্না বিষয়টি জেনে তাৎক্ষণিক হাবিবাকে বাদী করে সদর থানায় রাতেই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ডিউটি অফিসার এস আই জ্যোৎস্না।

জামালপুরের মানবাধিকার কর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম বলেন,যে সময় ঈদুল ফিতর ঈদের আনন্দ নিয়ে ওই কাপুরুষ ছাত্তারসহ সবাই আনন্দ উৎসবে বিভোর হয়ে পড়েছিল। ঠিক তখনি হাবিবা ও তার শিশু সন্তান নিয়ে নির্যাতনের শিকার হয়ে থানায় বসে বসে চোখের জলে বুক ভাসাচ্ছিল। সে জানেনা তার এই শিশু বাচ্চা নিয়ে কোথায় আশ্রয় নিবে। অবশেষে হাবিবার স্থান হয়েছে জামালপুর শহরের ডাকপাড়া এলাকার অপরাজেয় বাংলাদেশের স্নেহা আশ্রয় কেন্দ্রে। তাই এলাকা বাসী বিষয়টি দূত ব্যাবস্থা গ্রহনের অনুরোধ জানিয়েছে

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved ©2023 -ওল্ডহাম বাংলা নিউজ |

সম্পাদক ও প্রকাশক: