সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেবিদ্বারে কেঁদে কেঁদে ঈগল প্রতিকে ভোট চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম নৌকায় ভোট দিয়েই মেঘনার সঠিক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব… সেলিমা আহমাদ ঈগলে ভোট দিলে গোমতীর মাটি লুট জিবির নামে চাঁদাবাজি বন্ধ হবে: আবুল কালাম আজাদ দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা কুমিল্লায় পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ ব্রাজিলে ঘূর্ণিঝড়ে নিহত ২২ সিলেটে মসজিদের পুকুর থেকে ইমামের মরদেহ উদ্ধার সিলেটে সিএনজি স্টেশনের জেনারেটর বিস্ফোরণে দগ্ধ ৭ বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলের নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা মারা গেলেন লন্ডনের বাংলাদেশ হাইক‌মিশনের মিনিস্টার মুক্তি

যুক্তরাজ্যের ৮০ শতাংশ প্রতিষ্ঠানে বেতন বেশি পুরুষদের

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৮

যুক্তরাজ্যের ৮০ শতাংশ প্রতিষ্ঠানেই নারীর চেয়ে পুরুষের বেতন বেশি। অর্থাৎ নানা তৎপরতা সত্ত্বেও দেশটিতে খুব একটা কমেনি লৈঙ্গিক বৈষম্য। ২০২২-২৩ অর্থবছরে বেতন ব্যবধান ১২ দশমিক ২ শতাংশ। ২০১৭-১৮ সময়ে ব্যবধান ছিল ১১ দশমিক ৯ শতাংশ। গত বছরের চেয়ে চলতি বছরের বেতন বৈষম্য অপরিবর্তিত।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, ৭৯ দশমিক ৫ শতাংশ প্রতিষ্ঠানেই বেতন কাঠামোয় বৈষম্য। প্রতিষ্ঠানগুলো পুরুষ প্রার্থীর ব্যাপারে বেশি আগ্রহী। এ বৈষম্য হতাশ করেছে বিভিন্ন ব্যবসায়িক সংগঠন ও বেতনের সমতায় ক্যাম্পেইন করা সংস্থাকে। চার্টার্ড ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী অ্যান ফ্রাঙ্কস বলেন, ‘‌প্রতিষ্ঠানগুলো মনে করে তারা লিঙ্গবৈষম্য দূর করতে সঠিক পদক্ষেপ নিচ্ছে। কিন্তু সত্যিকার ফলাফলে স্পষ্ট হয়েছে তাদের ব্যর্থতা।’

পরিবহন ও প্রশাসনে বেতন বৈষম্য বেড়েছে। তবে শিক্ষা খাতে ছিল সবচেয়ে বেশি। ২০২২-২৩ মৌসুমে এ খাতে গড় বৈষম্য ছিল ২৩ দশমিক ২ শতাংশ। অর্থনৈতিক খাতের অবস্থাও সুবিধাজনক নয়। চলতি বছরে এ খাতে গড় ব্যবধান ২২ দশমিক ৭ শতাংশ। পুরো অর্থনৈতিক খাতের মধ্যে ব্যাংকেই বৈষম্য সবচেয়ে বেশি। সেখানে লয়েড ব্যাংকিং গ্রুপে ব্যবধান ৩৪ দশমিক ৮ শতাংশ ও ন্যাটওয়েস্ট গ্রুপে ৩১ দশমিক ৬ শতাংশ। এইচএসবিসিতে ২০১৭-১৮ সালে বেতন বৈষম্য ছিল ২৯ শতাংশ। বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫১ দশমিক ৫ শতাংশ। ব্যাংকগুলো স্বীকার করেছে, উচ্চপদগুলোয় নারীদের উপস্থিতি তুলনামূলক অনেক কম। ফলে সার্বিকভাবে বৈষম্য আরো প্রকটভাবে দৃশ্যমান। বৈষম্য কমিয়ে আনতে পদক্ষেপ গ্রহণের কথা জানিয়েছে ন্যাটওয়েস্ট ও এইচএসবিসি ব্যাংক। এদিকে ল ফার্মগুলোয়ও বৈষম্য বিরাজমান।

২০১৭ সালে যুক্তরাজ্য লৈঙ্গিক বৈষম্য কমিয়ে আনার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল। ছয় বছর পর এসে প্রকাশিত ফলাফল বিশ্লেষকদের কাছে হতাশাজনক। এফটিএসই উইমেন লিডার্স রিভিউর প্রধান নির্বাহী ডেনিজ উইলসন দাবি করেছেন, ‘‌দক্ষ নারীর ঘাটতি নেই। তারা উচ্চপদগুলোর দায়িত্ব নিতে পারবে। নির্বাচন প্রক্রিয়ায় পক্ষপাত দূর করাটা এই মুহূর্তে জরুরি। সেই সঙ্গে প্রয়োজন নারীবান্ধব কর্মপরিবেশ তৈরি করা।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved ©2023 -ওল্ডহাম বাংলা নিউজ |

সম্পাদক ও প্রকাশক: