সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেবিদ্বারে কেঁদে কেঁদে ঈগল প্রতিকে ভোট চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম নৌকায় ভোট দিয়েই মেঘনার সঠিক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব… সেলিমা আহমাদ ঈগলে ভোট দিলে গোমতীর মাটি লুট জিবির নামে চাঁদাবাজি বন্ধ হবে: আবুল কালাম আজাদ দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা কুমিল্লায় পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ ব্রাজিলে ঘূর্ণিঝড়ে নিহত ২২ সিলেটে মসজিদের পুকুর থেকে ইমামের মরদেহ উদ্ধার সিলেটে সিএনজি স্টেশনের জেনারেটর বিস্ফোরণে দগ্ধ ৭ বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলের নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা মারা গেলেন লন্ডনের বাংলাদেশ হাইক‌মিশনের মিনিস্টার মুক্তি

যুক্তরাজ্য ওভারক্রাউডেড সমস্যায় জর্জরিত শিশুরা

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৬

যুক্তরাজ্যে একটি নতুন গবেষণার তথ্যানুযায়ী ইংল্যান্ডের ৩,০০,০০০ এরও বেশি শিশুকে পরিবারের অন্য সদস্যের সাথে একটি বিছানা শেয়ার করে ঘুমাতে হয়। এনএইচএফ এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ছোট বাচ্চারা ও কিশোর -কিশোরীরা তাদের বাবা মা’য়ের সাথে ওভারক্রাউডেড সমস্যায় জর্জরিত। যার অন্যতম কারণ ঘরের অভাব।

ওভারক্রাউডের কারণে ৪৮% বাড়িতে বাচ্চাদের পড়ালেখার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা থাকে না। তাছাড়া ৭০% পরিবার বলেছে তাদের জীবনযাত্রার মানের কারণে শিশুরা দুর্বল মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের অধিকারী হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে বর্তমানে সামাজিক আবাসনের তীব্র অভাবই ওভারক্রাউডেড বা উপচে পড়া ভিড়ের মূল কারণ।

এনএইচএফ সাশ্রয়ী মূল্যের বাড়ির অভাবের মূল কারণ হিসাবে ২০১০ সালে সামাজিক আবাসনের জন্য সরকারের বাজেটের কাটকে দায়ী করেছে। গত বছর মাত্র ৭৫২৮ টি স্যোশাল রেন্ট হাউস নির্মিত হয়েছিল, ২০১০ সালের তুলনায় তা ৮১% কম।

এনএইচএফ জানিয়েছে, বিদ্যমান চাহিদা মেটাতে প্রতি বছর ৯০,০০০ টির মতো সাশ্রয়ী মূল্যের বাড়ি তৈরি করতে হবে। তবেই এই সমস্যা মোকাবেলা করা সম্ভব।

এনএইচএফের চিফ এক্সিকিউটিভ কেট হেন্ডারসন বলেছেন, ওভারক্রাউডেড বাড়িগুলো একটি সন্তানের আত্মসম্মান, মঙ্গল এবং ভবিষ্যতের জীবন পরিবর্তনের উপর একটি বিধ্বংসী প্রভাব ফেলতে পারে। পাশাপাশি পারিবারিক সম্পর্ককে প্রভাবিত করে এবং পিতামাতার পক্ষে তাদের সন্তানের সঠিক লালনপালন করা কঠিন হয়ে যায়।”

এ নিয়ে আবাসন বিভাগের একজন মুখপাত্র বলেছেন, “আবাসনের চাপ সামলানোর জন্য সাশ্রয়ী মূল্যের আবাসন সরবরাহ বাড়িয়ে তোলার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। আশা করা যায় দ্রুত এই সমস্যা কাটিয়ে উঠা সম্ভব হবে।”

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved ©2023 -ওল্ডহাম বাংলা নিউজ |

সম্পাদক ও প্রকাশক: